1. admin@aparadhatallasi.com : admin :
রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ০৭:৪৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
শ্রীপুরে আওয়ামী লীগের ৭৫ তম প্রতিস্ঠা বার্ষিকী পালিত ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জে ১ লাখ টাকার ঋণ পেতে ঘুষ লাগে ২ হাজার টাকা কালকিনিতে আওয়ামী লীগ নেতাকে মারধর !! থানায় অভিযোগ নেতাকর্মীদের সঙ্গে ঈদ পরবর্তী শুভেচ্ছা বিনিময় করেন মাহাবুব উদ্দিন সেলিম আলীকদমে মেডিকেল কলেজে পড়ুয়া পর্যটক আবিদের মৃত্যু ঠাকুরগাঁও জেলা পুলিশের অভিযানে ১৭০ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধারসহ গ্রেফতার -৫ রাসেলসস ভাইপার দেখলে যোগাযোগ করবেন যেসব নাম্বারে.. লোহাগাড়ায় যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে অপপ্রচারের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন ফুলবাড়ীতে অসুস্থ ছাগলের মাংস বিক্রয়ের অভিযোগ ভ্রাম্যমান আদালতে ২০ হাজার টাকা জরিমানা মধুপুরে প্রাইভেটকার ও মাহিন্দ্রার মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ২ আহত ৮

সাভার ভাকুর্তায় কয়লা তৈরি গাছের গুড়ি কাঠ জ্বালিয়ে–দৈনিক অপরাধ তল্লাশি 

  • আপডেট সময় : রবিবার, ২৬ মার্চ, ২০২৩
  • ৬৪ বার পঠিত

মো.মাইনুল ইসলাম,সাভার প্রতিনিধিঃ

ঢাকার সাভার উপজেলার ভাকুর্তা ইউনিয়নের মোগরাকান্দা এলাকার ড্রিমল্যান্ড হাউজিং ও ওরিয়েন্টাল গ্রুপের পিছনে জুলহাস নামের স্থানীয় এক ব্যক্তি দীর্ঘদিন যাবৎ বড় বড় অসংখ্য বদ্ধ চুলা বানিয়ে তার ভিতরে কাঠের গুড়ি দিয়ে দিন ২৪ ঘন্টা জ্বালিয়ে কয়লা তৈরি করেন। এই সমস্ত চুরি করা গাছের গুড়ি,জ্বালানি কাঠ এবং বনজ কাঠ জ্বালিয়ে কয়লা তৈরি করছে। এতে করে যারা প্রতিনিয়ত এই কাজে নিয়োজিত আছেন তাদের নানা ধরনের রোগ ব্যাধি এবং শ্বাস প্রশ্বাসের ক্ষতি হচ্ছে। এতে করে যেমন মানুষের মানবদেহের ক্ষতি হচ্ছে। তেমনি করে বায়ু ও পরিবেশ দূষণ হচ্ছে। আমাদের দেশের বনজ সম্পদ ব্যাপক আকারে বিনষ্ট করে জাতীয় সম্পদ ক্ষতিগ্রস্ত করছে। এই জুলহাস কখনো কাঠ গাছের গুড়ি বিয়ে কয়লা পোড়ানো স্থানে থাকে না।

ওই স্থানের কয়েকজন লেবার হাতে আমাদের কথা হয় তারা বলেন, মালিক জুলহাস ধরাছোঁয়ার বাহিরে আমরাই পরিচালনা করি। ভাই আর কি বলবেন? আমাদের সঙ্গে বলেন, তখন আমাদের এই প্রতিনিধি বলেন, তোমার মালিক কোথায়? ভুট্টু নামের একজন লেবার বলেন, আমাদের মালিক আপনদের আসা দেখে চলে গেছেন। উনি এরকমই করে কোন সাংবাদিক পুলিশ অথবা পরিবেশের লোক যেকোনো ধরনের আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর লোক দেখলেই পালিয়ে যান। এই সমস্ত অবৈধ কাঠ রাতের অন্ধকারে চোরায় পথে চুরি করে আমাদের কাছে বিক্রি করে যায়।

এ ব্যাপারে একাধিক বার জুলহাস মিয়ার মোবাইল ফোনে চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি। এই এলাকার স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানাযায়, জুলহাস মিয়া হিংস্র প্রকৃতির লোক। আমরা এ বিষয়ে কথা বলতে গেলে এলাকার কিছু পাতি নেতাদের ভয় দেখায় এবং বলে তোমরা আমার কিছুই করতে পারবে না। এলাকাবাসী তাদের ভয়ে প্রতিবাদ করতে সাহস পায় না। এমত অবস্থায় চলতে থাকলে বনসম্পদ ধ্বংস হয়ে যাবে এবং প্রাকৃতিক বলতে কিছুই থাকবে না। এই অবৈধ কাঠ দিয়ে কয়লা তৈরি করা বন্ধ না করলে আমাদের জাতীয় সম্পদ বন রক্ষাতে প্রশাসনের দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন।

এ বিষয়ে কথা হয় আমাদের সাভার জোনের বন বিভাগের বিট কর্মকর্তা মো.শহিদুল ইসলামের সাথে তিনি আমাদের বলেন, এসব রাতের অন্ধকারে করে থাকেন। এর আগে কয়েকবার চোর ধরেছিলাম এবং পুলিশ এনে থানায় ধরে নিয়ে মামলা দিয়ে জেল হাজতে পাঠিয়েছিলাম। আমি বিষয়টা আপনার কাছে জানলাম এবং আমি অতি দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২৩ দৈনিক অপরাধ তল্লাশি

Theme Customized By Shakil IT Park