1. admin@aparadhatallasi.com : admin :
রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ০৫:২৭ অপরাহ্ন

শ্রীপুরে পোশাক শ্রমিকের বেতন ও বোনাসের জন্য রাস্তা অবরোধ -দৈনিক অপরাধ তল্লাশি 

  • আপডেট সময় : সোমবার, ১৫ মে, ২০২৩
  • ৩৬ বার পঠিত
মোজাম্মেল সরকার, বিশেষ প্রতিনিধিঃ
গাজীপুর জেলার  শ্রীপুর উপজেলার  ডার্ড কম্পোজিট কারখানার শ্রমিকেরা ৩ মাসের বকেয়া বেতন এবং ঈদ বোনাসহ বিভিন্ন দাবীতে রাজেন্দ্রপুর-কাপাসিয়াসড়ক ৫ ঘন্টা অবরোধ করে বিক্ষোভ করে। এসময় সড়কের উভয় পাশে ৩ কিলো মিটার জুড়ে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। আন্দোলনরত শ্রমিকদের সাথে মালিক পক্ষ থেকে বসার প্রতিশ্রুতি দিলে বিকেল ৪ টায় তারা অবরোধ তুলে নেয়।
গাজীপুর শিল্প পুলিশের শ্রীপুর জোনের ইনচার্জ হুমায়ূন কবির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। শনিবার (১৩ই মে) বেলা ১১টা থেকে শ্রীপুর উপজেলার রাজাবাড়ী ইউনিয়নের ধলাদিয়া (সাটিয়াবাড়ী) এলাকায় কারখানার সামনে ওই সড়কের ওপর অবস্থান নিয়ে তারা বিক্ষোভ করে। আন্দোলনরত শ্রমিকেরা জানান, কারখানা কর্তৃপক্ষ তাদের বকেয়া বেতনভাতাসহ ঈদ বোনাস, মাতৃত্বকালীন ভাতা, ওভারটাইম ভাতা, উৎপাদন বোনাস, দুই বছরের ইনসেনটিভ ভাতা, রমজান মাসের ইফতারের টাকা, বিনা কারণে যখন তখন শ্রমিক ছাঁটাইয়ের প্রতিবাদে তারা বিক্ষোভ করছে। ফেব্রুয়ারী থেকে এপ্রিল মাস পর্যন্ত তাদের ওইসব সকল পাওনা বকেয়া রয়েছে। সুইং অপারেটর চম্পা আক্তার বলেন, তাদের পাওনা দাবী করলে কারখানা কর্তৃপক্ষ দেই দিচ্ছি বলে সময় পার করে আসছে।
গত তিন মাস যাবৎ বেতন না দেয়ায় তারা দোকান বাকি ও ঘর ভাড়া দিতে পারছেন না। ঘর ভাড়া দেওয়ার জন্য মালিকেরা চাপ দিচ্ছে। দোকান মালিকেরা তাদের পাওনা টাকার জন্য তাগাদা নিচ্ছেন। অনেক দোকান মালিক বাকি দেওয়া বন্ধ করে দিয়েছেন। অপর সুইং অপারেটর হালিমা আক্তার বলেন, বেতন না পাওয়ায় আমরা আমাদের ছেলেমেয়েদের স্কুলের বেতন ও প্রাইভেট শিক্ষকের বেতন দিতে পারছি না। তিন মাস যাবৎ বেতন বোনাসসহ বিভিন্ন পাওনা না পাওয়ায় খুবই কষ্টে জীবন কাটছে আমাদের। এসবের প্রতিবাদ করলে কারখানা কর্তৃপক্ষ বিনা নোটিশে পাওনা পরিশোধ না করে চাকুরিচূত করার হুমকি দেয়। অনেককে চাকুরিচ্যুতিও করা হয়েছে।
 সবিতা রানী জানান, ঈদের আগে অর্ধেক মাসের বেতন দেওয়ার ঘোষনা দিলেও কারখানা কর্তৃপক্ষ বেতন না দিয়ে ঈদের আগে ছুটি দিয়ে দেয়। আমরা বেতন না নিয়ে ঈদে বাড়ি যেতে হচ্ছে। ঈদের পর কারাখানা খোলার পর বকেয়া বেতনসহ সকল পাওনা পরিশোধ করার কথা বলে কর্তৃপক্ষ বার বার সময় দিয়ে আমাদের পাওনা পরিশোধ করছে না। তাই বাধ্য হয়ে আমাদের সড়কে নামতে হয়েছে। শ্রীপুর থানার ওসি আবুল ফজল মোঃ নাসিম জানান, সড়ক অবরোধের খবর পেয়ে পুলিশ বিক্ষোভরত শ্রমিকদের বুঝিয়ে সড়ক থেকে সরিয়ে কারখানার সীমানা প্রাচীরের ভিতর নিয়ে যায়।
 পরে কারখানার মালিক না আসা পর্যন্ত তারা কাজে ফিরবে না বলে জানায়। গাজীপুর শিল্প পুলিশের শ্রীপুর জোনের ইনচার্জ হুমায়ুন কবির বলেন, ১৪ মে কারখানা মালিক শ্রমিকদের সাথে বসার প্রতিশ্রুতি দিলে বিকেল ৪ টার দিকে তারা অবরোধ তুলে নেয়। ভার্ড কম্পোজিট লিমিটেড কারখানার ব্যবস্থাপক (মানব সম্পদ ও প্রশাসন) আকাশ মিয়ার ফোন বন্ধ থাকায় এসব অভিযোগের বিষয়ে বক্তব্য পাওয়া সম্ভব হয়নি। শ্রীপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো: আল-মামুন জানান, শ্রমিকদের সাথে কথা বলে বুঝা গেছে স্থানীয়ভাবে কারখানা যারা পরিচালনা করে (জিএম, পিএম এবং প্রশাসন বিভাগের লোকজন) তাদের বিরুদ্ধে শ্রমিকদের ক্ষোভ দেখা গেছে। তারা বলছে আমাদের বকেয়া পরিশোধের বিষয়ে আমরা সরাসরি মালিকের সাথে বসতে চাই। আমরা কারখানা কর্তৃপক্ষের সাথে কোনো কথা বলব না। তারা শ্রমিকদের বকেয়া দেই দিচ্ছি বলে ঘুরাচ্ছে। পরে মালিকের সাথে কথা বলে রবিবার বেলা ১১ টায় শ্রমিকদের সাথে বসার প্রতিশ্রুতি দিলে তারা সড়ক থেকে অবরোধ তুলে নেয়। তবে কারখানায় কোনো ধরনের ভাঙচুর করা হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২৩ দৈনিক অপরাধ তল্লাশি

Theme Customized By Shakil IT Park