1. admin@aparadhatallasi.com : admin :
বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ০৫:৫৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
সাতকানিয়ায় ১৭ টাকা পাওনাকে কেন্দ্র করে ছু রিকাঘা তে যুবককে হ ত্যা রংপুর বিভাগের ১৯ উপজেলা চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যানের শপথগ্রহণ অনুষ্ঠিত রানীশংকৈলে জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা সপ্তাহের সমাপনি অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত ৫৩বছর বছর ধরে ঘাস বেচেই সংসার চলে ভূমিহীন অমলের ফুলবাড়ীতে ই‌রি-বোরো ধান সংগ্রহে উন্মুক্ত লটারি পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জে ফার্মেসীতে ফেনসিডিল সেবনের সময় পুলিশের হাতে আটক দুই ফুলবাড়ীতে রেমালের প্রভাব: পাকা ধান নিয়ে দুশ্চিন্তায় কৃষক তীব্র গরমে স্বস্তি দিচ্ছে তালের শাঁস ফুলবাড়ীতে জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা সপ্তাহ উদ্বোধন মাদারীপুরে সমাজসেবার দুই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অভিযোগ

বদরগঞ্জে প্রথম আলো ট্রাস্টের উদ্যোগে শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরন

  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ১৮ জানুয়ারি, ২০২৪
  • ৩৭ বার পঠিত

জুবেল আরেফিন,বিশেষ প্রতিনিধিঃ

রংপুরের বদরগঞ্জে তীব্র শীত ও ঘন কুয়াশায় সাধারণ মানুষ ভোগান্তিতে পড়েছেন। স্থানীয় চিকলি নদীর তীরের বাসিন্দারা আরও কাহিল হয়ে পড়েছেন। হিমেল বাতাসে ঠান্ডার তীব্রতা বেড়ে যাওয়ায় গরিব, দুস্থ, অসহায় লোকজন কুকড়ে আছেন। তারা খড়কুটা জ্বালিয়ে শীত নিবারণের আপ্রাণ চেষ্টা করছেন। চিকলি নদীপারের ঐ শীতার্ত কিছু মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে প্রথম আলো ট্রাস্ট। আজ বুধবার ওই নদীর পারের দামোদরপুরের চিকলি ফুটবল খেলার মাঠে প্রথম আলো ট্রাস্টের উদ্যোগে কম্বল বিতরণ করা হয়েছে। চটকুপাড়া গ্রামের ফাতেমা বেগম (৯১) বয়সের ভারে কুজো হয়ে গেছেন। দুই নাতিকে সঙ্গে নিয়ে লাঠিতে ভর করে তিনি এসেছেন। কম্বল হাতে পেয়ে কাপতে কাপতে তিনি বলেন, বেলাটা ওই যে মুন্দিছে আর দেখা যাওচে না। ৯ দিন থাকি ঠান্ডাতে খুব কষ্ট হইছে। কম্বলটা গাওত দিয়া আইজ শান্তি মোতোন ঘুমাইম।কম্বল বিতরণের জন্য গতকাল মঙ্গলবার রাতে চিকলি নদীপারের দামোদরপুরের জেলেপাড়া, হাটখোলাপাড়া, বটতলী, চটকুপাড়া, মোস্তফাপুর মণ্ডলপাড়া, বকশীপাড়া ও তুফানুপাড়া গ্রাম ঘুরে গরিব ও অসহায় মানুষের মধ্যে স্লিপ বিতরণ করা হয়।

 

এ ছাড়া বদরগঞ্জ পৌরসভার রেলওয়ে বস্তি, শাহাপুর, নোয়াখালীপাড়া ও রাধানগরের পাঠানপাড়া গ্রাম ঘুরে একইভাবে দেওয়া হয় স্লিপ। আজ বেলা ১১টার মধ্যে চিকলি ফুটবল খেলার মাঠে উপস্থিত হন ১০৭ জন। তাদের হাতে কম্বল তুলে দেন, আমরুলবাড়ি আসমতপাড়া জামে মসজিদের পেশ ইমাম বরকত আলী সরকার ও স্থানীয় আফতাবগঞ্জ দাখিল মাদ্রাসার সুপার আহাদ আলী সরকার।

 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রথম আলোর বদরগঞ্জ প্রতিনিধি আলতাফ হোসেন। কম্বল বিতরণে সহযোগিতা করেন কলেজ শিক্ষার্থী মোস্তাফিজার রহমান, সুজন মাহমুদ, আনোয়ারুল ইসলাম এবং স্থানীয় সাংবাদিক আশরাফুল আলম। লাঠিতে ভর করে এসেছিলেন চিকলি নদীপারের জেলেপাড়া গ্রামের অসহায় আছিরন নেছা (৮৭)। গায়ে তার পাতলা জরাজীর্ণ শাড়ি। ঠান্ডায় কাপছিলেন। বলেন, বাবা টপ করি মোক কম্বল দেও, গাওত দিয়া বাচো। কম্বল পেয়ে কাদতে কাদতে তিনি বিড়বিড় করে বলেন, হে আল্লাহ, কম্বল দিয়া মোক জায় বাচাইল, তাক তুই বাচাইস। কম্বল হাতে পেয়ে গরুহাটি এলাকার লালমিয়ার (৮০) মুখে দেখা যায় চওড়া হাসি। বলেন, এ্যাঙ্কা ঠান্ডা জেবনে কম দেখছি। চেয়ারম্যান–মেম্বারের পাচোত ঘুরিয়াও কম্বল পাওয়া যায় না। তোরা বাড়িত জায়া ডাকেয়া কম্বল দেনেন। দোয়া করোচি, আল্লাহ তোমাকও ডাকে জোন বেহেস্ত দেন। পাঠানপাড়া গ্রাম থেকে স্লিপ হাতে এসেছিলেন মোজাম্মেল হক (৭৫)। তার হাতেও কম্বল তুলে দেওয়া হয়।

 

এ সময় মোজাম্মেল হক বলেন, বাবারা, তোমরা মোর মোতন গরিব মানুষোক খুজিয়া বাইর করি যে কম্বলটা দেনেন, সেই জন্যে তোমাক ধন্যবাদ দেওচি। কম্বলটা ঠান্ডাত খুব উপকার করবে। স্লিপ না পেয়ে বিতরণ স্থলে কম্বল পাওয়ার আশায় প্রায় তিন কিলোমিটার হেটে এসেছিলেন ডাঙ্গিরপাড়া গ্রামের মিনতি রায় (৬২)। তাকে কম্বল দেওয়া সম্ভব নয়, এ কথা জানানো হলে কান্নাকাটি শুরু করেন। পরে আলাদা করে তার জন্যও একটি কম্বলের ব্যবস্থা করা হয়। কম্বল পাওয়ার পরে তিনি তা গায়ে জড়িয়ে বলেন, “ভগবান তোমার ভালো করুক”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২৩ দৈনিক অপরাধ তল্লাশি

Theme Customized By Shakil IT Park